Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

(১) শিÿা মন্ত্রণালয়াধীন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিÿা অধিদপ্তরের আওতায় বাসত্মবায়িতব্য ‘‘সেকেন্ডারী এডুকেশান কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (সেকায়েপ)’’।

(ক) সেকায়েপ প্রকল্পের প্রক্সি মিন্স টেষ্টি (পি.এম.টি)-এর আওতায় প্রতি বছর সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে উপজেলাধীন সকল ইউনিয়নে অস্থায়ী বুথ স্থাপন পূর্বক শিÿার্থী ও অভিভাবকের উপস্থিতিতে নির্ধারিক ফরম পূরন পূর্বক কম্পিউটারাইস্ড পদ্ধতিতে শিÿার্থী বাছাই পূর্বক তালিকাভূক্ত করা হয় এবং তালিকাভূক্ত শিÿার্থীদেরকে প্রকল্পের সুবিধা প্রদান করা হয়।

(খ) অত্র প্রকল্পের আওতায় উপজেলাধীন ২টি স্কুল এন্ড কলেজ, ৩০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৩টি নিমণমাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২২টি দাখিল মাদ্রাসা, ২টি আলিম মাদ্রাসা এবং১টি ফাজিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম ও ১০ম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীকে পড়ালেখায় আর্থিক সহায়তা বাবদ যথাক্রমে ৬ষ্ঠ শ্রেণি মাসিক ১০০/-টাকা হারে, ৭ম শ্রেণি মাসিক ১২৫/-টাকা হারে, ৮ম শ্রেণি মাসিক ১৬০/-টাকা হারে, ৯ম শ্রেণি মাসিক ১৮০/-টাকা হারে এবং ১০ম শ্রেণি মাসিক ২০০/-টাকা হারে উপবৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। তাছাড়াও প্রকল্পভূক্ত ছাত্র-ছাত্রীদের বিপরীতে ৬ষ্ঠ, ৭ম ও ৮ম শ্রেণি মাসিক ১৫/-টাকা হারে এবং ৯ম, ১০ম শ্রেণি মাসিক ২০/-টাকা হারে শিÿা প্রতিষ্ঠানকে টিউশন ফিস্ প্রদান করা হয়ে থাকে।

(গ) মাধ্যমিক পর্যায়ে শিÿার গুনগত মানোন্নয়নের লÿÿ্য ইংরেজি ও গনিত বিষয়ের শিÿকদের বিশেষ প্রশিÿণ প্রদান করা হয়।

(ঘ) প্রকল্পভূক্ত শিÿা প্রতিষ্ঠান সমূহের সকল শিÿার্থীর বার্ষিক পরীÿার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রতি বৎসর ৭ম, ৮ম, ৯ম ও ১০ম শ্রেণির শিÿার্থীদের মাধ্যে ১ম স্থান অর্জনকারী (ছাত্রদের মধ্যে ১ম ও ছাত্রীদের মধ্যে ১ম) উদ্দীপনা পুরস্কার বাববদ ৫০০/-উদ্দীপনা পুরস্কার প্রদান করা হয়।

(ঙ) প্রকল্পভূক্ত যে সকল শিÿার্থী এসএসসি/দাখিল পরীÿায় উত্তীর্ণ হয়, তাদেরকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ভর্তির জন্য ১,৫০০/- টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

(চ) অত্র প্রকল্পের কোয়ালিটি এডুকেশান কম্পোনেন্টের আওতায় প্রতিযোগিতামূলক ফলাফলের প্রত্যাশায় ভাল ফলাফল অর্জনকারী শিÿা প্রতিষ্ঠানের শিÿকদেরকে উদ্দীপনা পুরস্কার বাবদ ২০,০০০/- টাকা এবং বিষয়ভিত্তিক ভালফলাফল অর্জনকারী শিÿা প্রতিষ্ঠানের ইংরেজি/গনিত বিষয়ের শিÿকদেরকে উদ্দীপনা পুরস্কার বাবদ বাৎসরিক ১০,০০০/- টাকা করে দেয়া হয়ে থাকে। তাছাড়াও সামগ্রীক উপাত্তের উপর পর্যালোচনা পূর্বক শিÿা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন বাবদ বাৎসরিক ৭৫,০০০/-টাকা করে গ্রেড প্রোগ্রেশন এওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

(ছ) শিÿা প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে পানীয় জল সরবরাহ ও পয়ঃ নিস্কাষন সুবিধার জন্য প্রকল্পভূক্ত শিÿা প্রতিষ্ঠানসমূহে ‘‘টুইন ল্যাট্রিন নির্মাণ ও টিউবওয়েল স্থাপন’’ বাবদ মোট ব্যয়িত অর্থের ৯০% আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়ে থাকে।

(জ) ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলার জন্য প্রকল্পভূক্ত শিÿা প্রতিষ্ঠানে পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচী পরিচালিত হচ্ছে। উক্ত কর্মসূচীর আওতায় শিÿা প্রতিষ্ঠান সমূহে সহপাঠ বই দেয়া হয় এবং প্রতি বৎসর শিÿার্থীদের পরীÿা গ্রহন করা হয় ও সাফল্য অর্জনকারী শিÿার্থীদের পুরস্কৃত করা হয়।

(ঝ) শিÿা প্রতিষ্ঠানে ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরনের জন্য সকল প্রতিষ্ঠানে শিÿক-অভিভাবক সমিতি গঠন করা হয়েছে এবং সদস্যকে প্রশিÿণ দেয়া হয়েছে। তাছাড়াও উক্ত শিÿক-অভিভাবক সমিতির ব্যয় নির্বাহের জন্য বাৎসরিক ২,৫০০/-টাকা প্রদান করা হয়।

(২) শিÿা মন্ত্রণালয়াধীন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিÿা অধিদপ্তরের আওতায় বাসত্মবায়িতব্য ‘‘উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ছাত্রীদের উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প পর্যায়-৪’’।

(ক) অত্র প্রকল্পের আওতায় উপজেলাধীন উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের ২০টি শিÿা প্রতিষ্ঠানের ৪০%শিÿার্থীকে উপবৃত্তি ও বই ক্রয়(একাদশ শ্রেণি)/ফরম পুরন (দ্বাদশ শ্রেণি) বাবদ আর্থিক সুবিধা প্রদান করা হয়। তাছাড়াও উপবৃত্তিধারী শিÿার্থীদের বিপরীতে সংশিস্নষ্ট প্রতিষ্ঠানে টিউশন ফিস প্রদান করা হয়।

(২)  সণাতক (ডিগ্রী) পর্যায়ে  উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প

নারী শিÿার উৎকর্ষসাধন তথা  রাষ্ট্রীয় কাজে  সকল সত্মওে নারীর ÿমতায়ন সুপ্রতিষ্ঠিত করতে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে এবং সে লÿÿ্য সরকার সণাতক (ডিগ্রী) পর্যায়ে  উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প কার্যক্র্ম ২০১৩ সাল হতে গ্রহণ করেছে।